गुरुवार, 29 जनवरी 2015

এবার টিপু সুলতানের চরিত্র হননের পালা!Hindutva regime of corporate racial mind control now makes a demon of Tipu Sultan after invoking Godse to Kill Gandhi again and again and doing to make India an AKHAND MAHBHARAT!

Hindutva regime of corporate racial mind control now makes a demon of Tipu Sultan after invoking Godse to Kill Gandhi again and again and doing to make India an AKHAND MAHBHARAT!

Naya Digant,the Bangladesh Daily publishes a very relevant article quoting Indian media reports and it would help us to understand how the Hindutva is going to make a hell lose again across the border.

The Holocaust has to continue,Thanks to the Lotus harvesting at such a large scale!
Palash Biswas

এবার টিপু সুলতানের চরিত্র হননের পালা
​​
Tipu-Sultan


নরেন্দ্র মোদির বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর ভারতে হিন্দুত্ববাদীরা নতুন নতুন সাম্প্রদায়িক কাণ্ডকীর্তি নিয়ে হাজির হচ্ছে। ওরা এখন ব্যস্ত ভারতকে তাদের স্বপ্নের 'হিন্দুরাষ্ট্র' হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে। এ জন্য মুসলমান ও খ্রিষ্টানদের জোর করে হিন্দু বানানোর তথাকথিত 'ঘর ওয়াপসি' কর্মসূচি বাস্তবায়নের কাজ দৃশ্যমান, যা ভারতে প্রবল সমালেচনার মুখে পড়েছে। 

এরা মহাত্মা গান্ধীর আততায়ী নথুরাম গডসেকে মহান হিন্দু জাতীয়তাবাদী হিসেবে গান্ধীর বিপরীতে দাঁড় করিয়ে দেয়ার নানা পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করেছে। এরা ঘটা করে নথুরাম গডসের জন্মদিন পালন করছে। জাতীয় পর্যায়ে তাকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য তার বিশাল মূর্তি বানানোর জন্য সরকারের কাছে উপযুক্ত জায়গা দাবি করেছে। গান্ধীর চেয়ে নথুরাম গডসে এদের কাছে অধিকতর মর্যাদাপূর্ণ। কারণ গান্ধী ছিলেন 'ইন্ডিয়ান ন্যাশন' গড়ার পক্ষে, আর হিন্দুত্ববাদী নথুরাম ছিলেন 'হিন্দু ন্যাশন' গড়ার পক্ষে।

এ দিকে ২০১৪ সালের ২ ডিসেম্বর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা দেন, এখন থেকে প্রতি বছর ২৫ ডিসেম্বরে পলিত হবে 'গুড গভার্নেন্স ডে'। কারণ এই দিনটি হিন্দু জাতীয়তাবাদী মদনমোহন মালব্যের ও অটলবিহারী বাজপেয়ির জন্মদিন। এ ঘোষণার পর পর স্কুলগুলোতে সার্কুলার পাঠানো হয় ২৫ ডিসেম্বরের পাবলিক হলিডে বাতিল করে এ দিনে স্কুলে এসে ছাত্রছাত্রীরা যেন নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করে। সরকারি অফিসেও নোটিশ পাঠানো হয় অফিস খোলা রেখে একইভাবে নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করতে। অথচ ভারত স্বাধীন হওয়ার পর থেকে ২৫ ডিসেম্বর ছিল খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের বড়দিন হিসেবে একটি সাধারণ ছুটির দিন। মোদি সরকারের এ পদক্ষেপের ফলে এই প্রথম ভারতের খ্রিষ্টান সম্প্রদায় বড় দিনের সাধারণ ছুটি থেকে বঞ্চিত হলো। ২০১৪ সালের ২৫ ডিসেম্বর দিনটি ছিল মোদি সরকার আমলের প্রথম বড়দিন। এই ছুটি বাতিল হলে ধর্মীয় সম্প্রদায়ের একটি প্রতিনিধিদল মোদির সাথে দেখা করেন। তারা মোদির কাছে নিরাপত্তা দাবি করলে তিনি বলেন, প্রত্যেক ইস্যুতে ভূমিকা তার কাজ নয়।

উল্লেখ্য, মোদি তার স্কুলজীবন থেকেই রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ তথা আরএসএসের সদস্য ছিলেন। আরএসএসের আরো কয়েকটি সহযোগী সংগঠন রয়েছে। এর মধ্যে রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টিও (বিজেপি) অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আরএসএস ও এর সব সহযোগী সংগঠনকে একত্রে বলা হয় সঙ্ঘ পরিবার, যার মুখ্য আদর্শ হিন্দু জাতীয়তাবাদ বা হিন্দুত্ব। এর ভিত্তিতে এদের চূড়ান্ত লক্ষ্য হিন্দু মহাভারত গঠন।

অতি সম্প্রতি এরা মাঠে নেমেছে আরেক এজেন্ডা হাতে নিয়ে : 'লাভ গডসে, হেইট টিপু সুলতান'। এবার এরা চরিত্রহননে নেমেছে 'মহীশুরের বাঘ' বলে খ্যাত রূপকথাসম অনন্য দেশপ্রেমিক টিপু সুলতানের (২০ নভেম্বর ১৭৫০Ñ৪ মে ১৭৯৯)। ব্রিটিশদের সাথে শৌর্য-বীর্যের সাথে লড়াই করে যে কয়জন ভারতীয় রাজন্য যুদ্ধক্ষেত্রেই শহীদ হয়েছেন তাদের মধ্যে টিপু সুলতান অন্যতম। উপনিবেশবাদী ব্রিটিশদের সাথে তিনি যুদ্ধ করতে করতে শ্রীরঙ্গপটমের যুদ্ধক্ষেত্রেই শহীদ হন। তার ত্যাগের উদাহরণ থেকে উজ্জীবিত হয়েই ভারত উপমহাদেশের স্বাধীনতার সূর্যসৈনিকেরা তার শাহাদতের ৫৮ বছর পর সূচনা করেছিলেন ১৮৫৭ সালের সিপাহি বিপ্লব। আমরা অনেকেই জানি না, ব্রিটিশ সৈন্যদের সাথে যুদ্ধ করে শহীদ হয়েছিল তাদের সন্তানেরাও।

কিন্তু আজ হিন্দুত্ব ব্রিগেডের নেতারা উঠেপড়ে লেগেছেন তার চরিত্রহননে। তার চরিত্রে কলঙ্ক লেপনের তাৎক্ষণিক কারণ কর্ণাটকের কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সরকার চায় টিপুজয়ন্তি তথা টিপু সুলতানের জন্মবার্ষিকী পালন করতে। এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়াহ (Siddaramaiah) এ ব্যাপারে ঘোষণাও দিয়েছেন। ইতিহাসবিদ অধ্যাপক বি শেখ আলীর লেখা বই টিপু সুলতান : অ্যা ক্রুসেডার অব চেঞ্জ -এর প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এই ঘোষণা দেন।

টিপু সুলতান ছিলেন একজন শাসক, বিজ্ঞজন, সৈনিক ও কবি। হিন্দু-মুসলিম ঐক্য গড়ে তোলায় প্রয়াসী অনন্য এক নেতা। তিনি আনন্দ পেতেন উদ্ভাবনায়। বলা হয়ে থাকে, তিনি ছিলেন প্রথম যুদ্ধ-রকেটের উদ্ভাবক। এই উদ্ভাবনার জন্য ভারত গর্ব করতে পারে। ভারত গর্ব করতে পারত শূন্য (০) আবিষ্কারের বিষয়টি নিয়ে। কিন্তু তা না করে এই কংগ্রেসে হিন্দুয়ায়ন চলেছে ভারতীয় বিজ্ঞানেরও। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ভারতীয় বিজ্ঞান কংগ্রেসে এর প্রতিফলন দেখা গেছে। এতে বলা হয়, গণেশের হাতির মতো মাথা আর মানুষের মতো দেহ প্রমাণ করে ভারতই প্লাস্টিক সার্জারির সূচনা করে। আসলে এই উদ্ভট দাবিটি গত অক্টোবরেই মোদির মুখ থেকে শোনা গিয়েছিল। 

এই বিজ্ঞান কংগ্রেসে আরো বলা হয়, সব বিজ্ঞানই নাকি বেদে আছে। বেদের যুগে ভারতে বিমান প্রযুক্তি উদ্ভাবিত হয়েছিল। ঋষিরা নাকি গ্রহ থেকে গ্রহান্তরে উড়ে বেড়াতেন বিমানে চড়ে। বলা হয় বৈদিক গণিত নাকি উন্নতির শীর্ষে পৌঁছেছিল। এ প্রসঙ্গে মনে পড়ে, ২০১০ সালে হায়দরাবাদে অনুষ্ঠিত গণিতবিদদের বিশ্ব সম্মেলনে গণিতের অধ্যাপক এম এস লঘুনাথের মন্তব্য। তখন তিনি বলেছিলেন, 'বৈদিক গণিত কি অমূল্য রতন? বিশ্বসেরা? আসলে বৈদিক গণিতের অনেকটাই কিন্তু 'ব্যাগ অব ট্রিকস'। চালাকিনির্ভর গণনাপদ্ধতি। গুণভাগের উন্নত কৌশল। আসল গণিত নয়।' এবারের ভারতীয় বিজ্ঞান কংগ্রেসে বিজ্ঞানের হিন্দুয়ায়নের যে অপপ্রয়াস চলেছে, তা নিয়ে ভারতে চলছে রীতিমতো হইচই।

টিপু সুলতান অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন ফরাসি বিপ্লব থেকে। একজন শাসক হলেও তিনি নিজের পরিচয় দিতেন একজন নাগরিক হিসেবে। অনন্য এই স্বাধীনতাকামী তার প্রাসাদে রোপণ করেছিলেন 'লিবার্টি' গাছ। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয়, টিপু সুলতান ব্রিটিশদের ষড়যন্ত্র পরিকল্পনা ধরতে পেরেছিলেন। সে জন্য তিনি সচেষ্ট ছিলেন স্থানীয় শাসকদের মধ্যে ধর্মনির্বিশেষে ঐক্য গড়ে তুলতে। এমন কি ব্রিটিশদের আধিপত্য ও প্রভুত্ববাদী ষড়যন্ত্রের অবসান ঘটানোর জন্য তিনি ফরাসি, তুর্কি ও আফগানদের সাথে যোগাযোগ গড়ে তুলতে চেষ্টা করেন। তার সুপরিকল্পিত উদ্যোগ ও কৌশল ব্যবহার করে তিনি দুইবার ব্রিটিশদের পরাজিত করতে সক্ষম হয়েছিলেন।
১৭৯১ সালে মারাঠা বাহিনী হামলা চালায় শ্রীঙ্গেরি শঙ্করাচার্য মঠ ও মন্দিরে। এরা মঠের মূল্যবান জিনিসপত্র লুণ্ঠন করে। অনেককে হত্যাও করে। তখন তৎকালীন শঙ্করাচার্য সাহায্য প্রার্থনা করে টিপু সুলতানের কাছে বার্তা পাঠান। টিপু সুলতান সাথে সাথে আসফকে আদেশ দেন মঠ ও মন্দিরে সহায়তা দিতে। কানাড়া ভাষায় লেখা অন্তত ৩০টি চিঠি বিনিময় হয় সুলতান ও শঙ্করাচার্যের মধ্যে। ১৯১৬ সালে এসব চিঠি মহীশুরের আর্কিওলজি ডিরেক্টর আবিষ্কার করেন। মারাঠাদের এই আক্রমণে টিপু সুলতান ক্ষোভ প্রকাশ করেন তার একটি পত্রে একটি কবিতাও লিখেন, যার সরল অর্থ : 'যারা একটি পবিত্র স্থানের বিরুদ্ধে এই অপকর্ম করেছে, তাদেরকে অদূর ভবিষ্যতে এই কলিযুগে এর পরিণামফল ভোগ করতে হবে।'

কিন্তু যখন এমন একজন ব্যক্তির জন্মদিন পালনের প্রস্তাব ঘোষণ করলেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী, তখন রাজ্যজুড়ে আরএসএস জন্ম দিলো নতুন এক বিতর্কের। সে রাজ্যর প্রধান বিরোধী দল বিজেপি এই প্রস্তাবকে 'ভোট কালেকশন এক্সারসাইজ' বলে অভিহিত করল। এই দলের একজন সিনিয়র নেতা টিপু সলতানকে 'টাইরেন্ট' বলে উল্লেখ করে সরকারের এই উদ্যোগের ব্যাপারে প্রশ্ন তোলেন। তাদের আরেক নেতা ডি এইচ শঙ্করমূর্তি টিপুকে 'কানাড়া-বিরোধী' বলে উল্লেখ করেন। তা ছাড়া তিনি আরো বলেন, টিপু সুলতান কানাড়িগা নন। তিনি এমন মিথ্যে দাবিও তোলেন, টিপু সুলতান কানাড়া ভাষা প্রতিস্থাপন করেছিলেন। 

অথচ টিপু সুলতানের মহীশুরে ফার্সি ভাষার পাশাপাশি কানাড়া ভাষা সরকারি ভাষা ছিল। স্মরণ করা যেতে পারে, ডি এইচ শঙ্করমূর্তি শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে একসময় ঘোষণা করেছিলেন কানাড়ার ইতিহাস থেকে সুলতানের নাম বাদ দিতে হবে। তখন সমাজের বিভিন্ন মহল থেকে তার এ বক্তব্যের প্রবল সমালোচনা এসেছিল। ফলে তখন তার এই উদ্যোগ বাতিল হয়ে যায়।
স্মরণ করা দরকার, গত বছর কর্ণাটক সরকারের সিদ্ধান্ত ছিল, টিপু সুলতানকে প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে সম্মান জানানো হবে একটি দৃশ্য রূপায়ণের মাধ্যমে।

 সিদ্ধান্তটি হিন্দুত্ব ব্রিগেডকে ক্ষুব্ধ করে। বিষয়টি তাদের আরো ক্ষুব্ধ করে তোলে যখন কেন্দ্রীয় সরকার গভীরভাবে ভাবছিল টিপু সুলতানের নামানুসারে একটি কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম দেয়ার কথা। তখন দ্বিতীয় ইউপিএ সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল শ্রীরঙ্গপটমে একটি নন-রিলিজিয়াস সেন্ট্রাল ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠা করার। এই শ্রীরঙ্গপটমেই টিপু সুলতান শহীদ হয়েছিলেন। দুই বছর আগে বিজেপির এক নেতা নির্লজ্জভাবে টিপু সুলতানকে ব্রিটিশদের সাথে তুলনা করেন এবং তাকে ব্রিটিশদের মতোই এক 'বিদেশী' বলে আখ্যায়িত করেন।

কেন বিজেপি টিপুকে ঘৃণা করতে পছন্দ করে? তাদের টিপুবিরোধিতার ভিত্তিই বা কী? সে বিবেচনায় যাওয়ার আগে জানা দরকার এদের ইতিহাস বিকৃতির বিষয়। এদের ডিভাইড অ্যান্ড রুল নীতি অনেকটা মিলে যায় ব্রিটিশদের ডিভাইড অ্যন্ড রুল নীতির সাথে। এ ক্ষেত্রে ১৯৭৭ সালে রাজ্যসভায় প্রফেসর বি এন পান্ডের দেয়া বক্তব্য প্রসঙ্গত উল্লেখ্য। এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের অধ্যাপক বি এন পান্ডে পরবর্তী সময়ে উরিষ্যার গভর্নর হয়েছিলেন। তিনি তার বক্তব্যে তার সেই ১৯২৮ সালের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছিলেন।

তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেনÑ তখন তিনি এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের অধ্যাপক। একদিন কিছু ছাত্র কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতের অধ্যাপক হরপ্রসাদ শাস্ত্রীর লেখা একটি বই নিয়ে তার কাছে এলো। বইটিতে অধ্যাপক শাস্ত্রী উল্লেখ করেছেন, টিপু সুলতান তিন হাজার ব্রাহ্মণকে বলেন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে, তা না হলে তাদের হত্যা করা হবে। তখন এই ব্রাহ্মণেরা মুসলমান না হয়ে আত্মহত্যা করেন। এই লেখা পড়ে অধ্যাপক বি এন পান্ডে হরপ্রসাদ শাস্ত্রীর কাছে চিঠি লিখে জানতে চান, তিনি যা লিখেছেন তার ভিত্তি কী? এ তথ্যের উৎস কী? প্রফেসর শাস্ত্রী ফেরত চিঠিতে উল্লেখ করেন, এর তথ্যসূত্র মহীশুর গেজেটিয়ার। এর পর প্রফেসর পান্ডে মহীশুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের অধ্যাপক শ্রীকান্তিয়ার কাছে চিঠি দিয়ে জানতে চান, মহীশুর গেজেটে কি এ কথা উল্লেখ আছে যে, টিপু সুলতান তিন হাজার ব্রাহ্মণকে মুসলমান বানাতে চেয়েছিলেন? জবাবি চিঠিতে অধ্যাপক শ্রীকান্তিয়া লিখে জানান, এটি পুরোপুরি অসত্য। তিনি এ বিষয় নিয়ে গবেষণার কাজ করেছেন এবং মহীশুর গেজেটে এ ধরনের কোনো উল্লেখ নেই। বরং সত্য সংস্করণটি ঠিক এর উল্টো। টিপু সুলতান ১৫৬টি মন্দিরে বার্ষিক মঞ্জুরি দিতেন। আর এই মঞ্জুরির অর্থ পাঠাতেন শঙ্করাচার্যের মাধ্যমে। (Page 2, Brittlebank, Kate (1999). Tipu Sultan's Search for Legitimacy. Delhi: Oxford University Press. ISBN 978-0-19-563977-3) ।

এটি দুঃখজনক, ১৯৯০-এর দশকে এসে আমরা উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের যেভাবে দেখি টিপু সুলতানের চরিত্র হনন করতে, ব্রিটিশ আমলে ব্রিটিশদেরও আমরা দেখেছি টিপুর চরিত্রে সে ধরনের কলঙ্ক লেপনের অপপ্রয়াস চালাতে।

কেউ যদি টিপু সুলতানের জীবনকাহিনী গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করেন তবে দেখতে পাবেন, কার্কপেট্রিক এবং উইলক্সের মতো ব্রিটিশ লেখকেরা ছিলেন অতি মাত্রায় টিপুবিরোধী। আসলে এরা প্রচুর সময় ব্যয় করেছেন টিপু সুলতানকে একজন 'টাইরেন্ট' হিসেবে উপস্থাপন করতে, আর ব্রিটিশদের উপস্থাপন করতে 'লিবারেটরস' হিসেবে। ব্রিটলব্যাংক তার সাম্প্রতিক এক বইয়ে উল্লেখ করেছেন, উইলক্স ও কার্কপেট্রিক উভয়েই টিপু সুলতানবিরোধী যুদ্ধে অংশ নিয়েছেন। এ দু'জনেরই ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল লর্ড কর্নওয়ালিস ও ওয়েলেসলির প্রশাসনের সাথে।

গভীর পর্যবেক্ষণে গেলে দেখা যাবে, উপনিবেশবাদী ও সাম্প্রদায়িক ইতিহাসবিদেরা ব্যবহার করেছেন তাদের নিজেদের স্বার্থে। জেমস মিল তার বই দ্য হিস্ট্রি অব ব্রিটিশ ইন্ডিয়ায় ভারতীয় ইতিহাসকে ভাগ করেছেন তিনটি কালে : হিন্দু, মুসলিম ও ব্রিটিশ। এই সমস্যাকর বৈশিষ্ট্যায়নের মাধ্যমে কার্যত অস্বীকার করা হয়েছে ভারতে বৌদ্ধ, জৈন ও অন্যান্য ধর্মীয় গোষ্ঠীর ভূমিকা ও অবদানকে। এ বইতে ভারতীয় ইতিহাস বিভাজনের সময় সতর্কতার সাথে এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে খ্রিষ্টানদেরও। জনৈক মজুমদারের লেখা ভারতীয় ইতিহাস প্রকাশ করেছে ভারতীয় বিদ্যাভবন। সেখানে রিভাইভালিজম ও কমিউনালিজমকে প্রমোট করার লক্ষ্য নিয়ে সর্বোচ্চ জায়গা দেয়া হয়েছে 'হিন্দু পিরিয়ড'কে। উপনিবেশবাদী ইতিহাসবিদেরা এমন একটি বিষয় প্রতিষ্ঠা করতে প্রয়াসী ছিল যে, ভারতে মুসলমানেরা 'ফরেনার্স' এবং হিন্দুরা 'ইন্ডিজেনিয়াস'।

স্বাধীনতা-উত্তর ভারতে লেখা ইতিহাস উপনিবেশবাদী লেখকদের ইতিহাসেরই ধারাবাহিকতা। আর সেটা হচ্ছে : 'দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান পাস্ট'। আরএসএস ও এর আইডোলগেরা আজকে ব্যস্তসমস্ত 'গ্রেটার ইন্ডিয়া' তথা এক 'হিন্দু মহাভারত' নামের মিথের বাস্তবায়নের পথ-আপথ খোলার সন্ধানে।

প্রফেসর আর এন ঝা'র অভিমতÑ আরএসএসের মুসলিম-বিরোধী মনোভাবের আকারটা এসেছে এইচ এম এলিয়ট ও জন ডাউসনের মতো উপনিবেশবাদী ইতিহাসবিদদের কাছ থেকে। এরা সঙ্কলন করেছেন 'দ্য হিস্ট্রি অব ইন্ডিয়া অ্যাজ টোল্ড বাই দেয়ার ওউন হিস্টোরিয়ানস'। এরা নিন্দা করেছেন মুসলমানদের এ ধারণা দিয়ে যে, এরা মন্দির ধ্বংস করেছে এবং হিন্দুদের হয়রানির শিকারে পরিণত করেছে। এলিয়টদের এই সূত্রায়নের আসল লক্ষ্য ঊনবিংশ শতাব্দীর মানুষের মধ্যে সাম্প্রদায়িকতা প্রবিষ্ট করা। এর মাধ্যমে ভারতীয়দের মধ্যে বিভাজন সৃষ্টি করা। 'ডিভাইড অ্যান্ড রুল' নীতির বাস্তবায়নের পথ পরিষ্কার করা। ব্রিটিশেরা তাদের সাম্রাজ্যবাদী স্বার্থ হাসিলের জন্য যা যা করেছিল তা এখন ইতিহাসের অংশ। 

সবাই ভালো করে জানেন, এরা ভারতবাসীর স্বাধীনতা আন্দোলনকে বলত মিউটিনি, অর্থাৎ বিদ্রোহ। আমাদের বীরদের এরা চিত্রিত করত ভিলেন হিসেবে। স্বাধীনতা সংগ্রামীদের বলত সন্ত্রাসী, জবরদখলকারী।

আরএসএস ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো ভারতে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের সম্মানিত করার বদলে হিন্দুত্ববাদী ধ্যানধারণা নিয়ে আজ যা করছে তা আজকের বৃহত্তর ভারতের জাতীয় ঐক্য বিনাশেরই নামান্তর। সে জন্য এরা টিপু সুলতানের চরিত্র হননে নামবে, এটাই স্বাভাবিক। হতে পারে টিপু সুলতানের ওপর এই আক্রমণ করে, তার চরিত্রবিকৃতি ঘটিয়ে এরা তার উপনিবেশবিরোধী বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা ভারতবাসীর মন থেকে ভুলিয়ে দিতে চায়। কারণ ভারতের মানুষের কাছে এমন তথ্যপ্রমাণ ভালোভাবেই আছে যে, আরএসএসের প্রতিষ্ঠাতা কেশব বালিরাম হেডগিওয়ার ও এর আরেক মুখ্য আইডোলগ গোলওয়াকার আরএসএস মেম্বারদের নির্দেশনা দিয়েছিলেন ব্রিটিশবিরোধী অভিযানে অংশ না নিতে। 

এদের কাছে আরএসএসের আরেক সম্মানীয়জন বিনায়ক দামোদর সাভারকার ছিলেন তাদের চেয়ে আরেক ধাপ এগিয়ে। তিনি ১৯৪২ সালের দিকে ভারতীয় হিন্দুদের ব্রিটিশ সামরিক বাহিনীতে যোগ দেয়ার তাগিদও দিয়েছিলেন। তখন 'কুইট ইন্ডিয়া; আন্দোলন অনেকটা তুঙ্গে, যা ব্রিটিশদের জন্য বড় ধরনের এক চ্যালেঞ্জ হয়ে ওঠে। অপর দিকে সুভাষ বসুর আজাদ হিন্দ ফৌজ তখন মরণকামড় নিয়ে হাজির। আসলে তখন সাভারকার শাসকদের সহায়তায় ভারতজুড়ে সফর করে জনসভা করে যাচ্ছিলেন এবং চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন 'হিন্দুয়াইজ দ্য মিলিটারি, মিলিটারাইজ দ্য হিন্দুইজম' স্লোগানের আওতায় হিন্দুদের উদ্বুদ্ধ করছিলেন ব্রিটিশ বাহিনীতে যোগ দিতে। এটি স্পষ্টÑ যখন চূড়ান্ত সময় উপনিবেশবিরোধী লড়াইয়ের, তখনো আরএসএস তা থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখে।

এই জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে হিন্দু মহাসভার ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট কমলেশ তেওয়ারি বলেছেন 'We plan to lay the foundation stone of a temple for Akhand Bharat Mata and Godseji on January 30, 2015. We also plan a big congregation of people where the ashes of Godseji, currently kept in Pune, will be brought to this temple in Sitapur. We are working towards creating a Hindu Rashtra and an undivided Bharat is our dream. We will immerse his ashes only after his dream has been realised.'
(http://indiatoday.intoday.in/story/godse-temple-hindu-group-gandhi-killer-nathuram-ghar-wapsi-akhil-bharat-mahasabha/1/408811.html)

'টিপুকে ঘৃণা কর' সিনড্রোম এখন প্রবলভাবে দেখা দিয়েছে আরএসএস ও সহযোগী সব সংগঠনের মধ্যে। অপর দিকে জোরদার হচ্ছে এদের গান্ধীর হত্যাকারী নথুরাম গডেসেকে উচ্চ প্রশংসিতজনে প্রতিষ্ঠিত করার প্রক্রিয়াও। ভারতের জনগণ এ পর্যন্ত নথুরাম গডসেকে একজন চরম হিন্দুত্ববাদী বলেই জেনে আসছে, যিনি হত্যা করেছিলেন মহাত্মা গান্ধীকে। খুব বেশি সময় আগে নয়, বিজেপি এমপি সাক্ষী মহারাজ ব্যাপক এক বিতর্কের জন্ম দেন এই বলে যে, গডসে একজন জাতীয়তাবাদী ও দেশপ্রেমিক। গত অক্টোবরে আরএসএসের এক মালয়ম মুখপাত্র বলেন, নথুরাম গডসের উচিত ছিল প্রধানমন্ত্রী জওয়াহেরলাল নেহরুকে হত্যা করা, গান্ধীকে নয়।

মোদি আমলের এই ভারতে এরই মধ্যে দেখা গেছে কার্যকর হিন্দু ধর্মে ধর্মান্তরকরণ, বড়দিনের সরকারি সাধারণ ছুটি বাতিল এবং টিপুকে ঘৃণার চোখে দেখা ও নথুরাম গডসেকে ভালোবাসার প্রক্রিয়া। এসবের বহিঃপ্রকাশ ভারত ও বিশ্ববাসীর মনে আজ নানা প্রশ্ন। ভারতে কি জওয়াহেরলাল নেহরু, মহাত্মা গান্ধী কিংবা টিপু সুলতানেরা তাদের প্রতিষ্ঠিত জাতীয় সম্মানের স্থান হারাতে বসেছেন? সে জায়গা কি দখল করবেন নথুরাম গডসে ও এমনি আরো কেউ। ভারত কি হারাবে এর দীর্ঘ দিনের ধর্মনিরপেক্ষ চরিত্র? কী হবে ভবিষ্যৎ ভারতের গণতন্ত্রের চরিত্র? সেখানে কি চলবে হিন্দুত্ববাদীদের তথাকথিত অখণ্ড হিন্দু মহাভারত? এসব প্রশ্নের জন্য আমাদের থাকতে হবে সময়ের অপেক্ষায়।


http://www.dailynayadiganta.com/details.php?nayadiganta=MTA0MjU5&s=Nw%3D%3D
__._,_.___


Bengal converted to Hinduva and the Book Fair is a Full Bloom Lotus! VHP converts Adivasi Christians in Bengal as Praveen Togadia takes over Bengal! What happened to the war cry,the crusade against communalism? What happened to the Progressive Secular and democratic Bengal? What happened to the agrarian legacy of continuous fight for Jal Jangal Jameen? What happened to the history of Buddhist Bengal?Non Aryan Bengal? Palash Biswas


Bengal converted to Hinduva and the Book Fair is a Full Bloom Lotus!
VHP converts Adivasi Christians in Bengal as Praveen Togadia takes over Bengal!
What happened to the war cry,the crusade against communalism?
What happened to the Progressive Secular and democratic Bengal?
What happened to the agrarian legacy of continuous fight for Jal Jangal Jameen?
What happened to the history of Buddhist Bengal?Non Aryan Bengal?
Palash Biswas
Though it is not the first incident.Hindutva Brigade first converted the followers of Anti Vedic,Anti Purohit Agrarian insurgency led by Harichand Thakur and Guruchand Thakur.

The Matua Movement was the first ever revolt against Manusmriti Rule in United India.Matua Family demanded citizenship just before Assembly elections and Manjul Krishna Thakur was rewarded with an insignificant ministry.Matua family forgot citizenship and cashed in further as Kapil Krishna Thakur known as Leftist crossed the fence and elevated himself as TMC MP.Manjul tried to get the ticket for his son Subrata and failed.Citizenship was again the game as Subrata Thakur launched a citizenship indefinite Hunger Strike and ended it within three days just after meeting BJP leaders behind close doors.

The very moment I wrote,the Matua Family since PR Thakur joining Congress just before partition has diverted the movement and the Non Aryan agrarian renaissance is just reduced to Hindutva.

Just for a Loksabha Ticket the legacy of Harichand Thakur Guruchand Thakur has been immersed in RSS and now,the Adivasi people follow the Matuas as Lotus blooms in Bengal,here,there and everywhere.

So much so that Calcutta Book Fair launched with seven books written and published by the Chief Minister Mamata Banerjee has been hijacked by RSS for a mass memebership drive.UNPRECEDENTED.

I am not considered a creative writer.I have no books to be launched.I am excluded from the iconic intelligentsia in Bengal and I never visited the Book Fair in the Milan Mela shifted from Kolkata Maidan and diverted from its apolitical legacy.

The Book Fair has been regimented in accordance to power politics and I stopped to visit the political fair since Bengal Politics launched a countrywide deportation drive headed by Pranab Mukherjee and Passed Citizenship Amendment Act aligning with RSS and its first NDA government.

For Bhasha Bandhan, I had to go the Book Fair even after that.
Since Nandigram Police Firing,all books launched from the political dias of the Book Fair and the business class writers and poets have been irrelevant to me.

I am sorry to say that the Book Fair is converted as well as Hindutva is the real theme as lotus blooms in the Book Fair.Nevertheless, Kolkata is set to become India's first fully Wi-Fi-enabled metro with a private ... at the inauguration of the Kolkata book fairon Tuesday evening. ... with urban youths, something that BJP was taking advantage of.Thanks to RELIANCE!

So, no wonder that Praveen Togadia managed a rare show of Ghar Wapasi in Birbhum for Bengal Adivasi People who have been involved in every agrarian insurgency, revolts and movement.

RSS may or may not win the 2016 elections,I am not sure as every politician is unpredictable and we may not who might cross the fences.
Nevertheless ,bengal goes that Hindutva ways and it is Sraswati Vandana all over.It is full bloom Durgotsav in Bengal!

I may not be sure whether Saurabh Ganguly whom I personally respect as the most intellectual Icon in India,would continue to refuse MODI invitation again and again provided he sees yet another Parivartan and a Parivartan with Lotus Blooming and Blooming.

I am not sure who is going to follow Rupa ganguly next.

For me Praveen Togadia and his VHP run through Bengal and without any resistance whatsoever.

For me the Left is  a divided House and it sustains the hegemony as well.I see no virtual chance for the Left in near future and RSS is blooming in Bengal so much so that I am afraid that someday the entire Left should convert to Hindutva.

What a pity that TMC is complaining forcible conversion while Mamata Banerjee is the Chief Minister till this date as far as my knowledge is concerned.

What happened to the war cry,the crusade against communalism?
What happened to the Progressive Secular and democratic Bengal?
What happened to the agrarian legacy of continuous fight for Jal Jangal Jameen?
What happened to the history of Buddhist Bengal?Non Aryan Bengal?
Here it is as the Hindu reports:

A TMC MLA alleged that over 100 tribals were lured to Hinduism in an event organised by the VHP in Birbhum district.

A major controversy erupted in West Bengal on Thursday over allegations of religious conversion of several tribals at Rampurhat town of the State's Birbhum district.
While the Viswa Hindu parishad (VHP) has denied any religious conversion, senior officials conformed to The Hindu that the tribals performed ceremonial offering as per Hindu practices.
"There was no 'Ghar Wapsi' (home coming) or conversion to Hiduism performed at Khurmadanga in Rampurhat area in Birbhum district. Local tribals took part in ceremonial offerings according to Hindu rituals," Sachindranath Sinha, VHP organisational secretary told The Hindu.
However, Trinamool Congress (TMC) MLA Asish Banerjee alleged that over 100 tribals who had accepted Christianity in the past were lured to Hinduism in an event organised by the VHP on Wednesday
"The incident occurred in Rampurhat town at Khurmadanga where proper religious ceremony was performed. We will take up the matter with the administration," Mr. Banerjee said.
"Officially I have not received any information on this," District Magistrate P Mohangandhi told The Hindu.
This is for the first time in recent years when row over is reported in the State.





কলকাতা আম্তর্জাতিক বইমেলা শুরু হল৷‌ বুধবার সে অর্থে প্রথম দিন৷‌ অধিকাংশ বইয়ের স্টলই তৈরি হয়ে গেছে৷‌ কিছু স্টলে চলছে শেষ মুহূর্তের কাজ৷‌ বইমেলা জমে উঠতে আরও দু'একদিন লাগবে৷‌ মিলন মেলায় সন্ধের পর বহু মানুষ এলেন৷‌ কেনার আগ্রহ এদিন তেমন চোখে পড়েনি৷‌ অনেক প্রকাশকই বছরের এই দিনটির দিকে তাকিয়ে নতুন বই প্রকাশ করেন৷‌ বইমেলার চত্বরে গতবারের মতো এবারও পটশিল্পী, নিজের ছবি আঁকান, চালের ওপর নাম লেখান৷‌...৷‌ সে সমস্ত আছে৷‌ প্লাস্টিকের বালতিতে জলের পাউচ৷‌ কফি কাপ, পিঠে-পুলি, ভাজা৷‌...৷‌ সব৷‌ লিটল ম্যাগাজিনের জন্য বরাদ্দ অঞ্চলে বহু ছোট পত্রিকার সম্পাদকরা এসেছেন৷‌ মেলা জমে উঠলে রাজ্যের নানা জায়গা থেকে লিটল ম্যাগাজিনের প্রকাশকরা আসবেন৷‌ তরুণ-তরুণী লেখকরা এখানে ভিড় জমিয়েছেন৷‌ বইমেলায় নামী প্রকাশকদের স্টলেও এবার ভিড়ের চাপ প্রথম দিকে দেখা যায়নি৷‌ রাজ্যের বাইরে থেকে অনেকেই এই সময়ে কলকাতায় আসেন৷‌ বইমেলার মাঠে দেখা হয়৷‌ কুশল বিনিময় আর নতুন বইয়ের খোঁজ– দুয়েরই সাক্ষী থাকে মিলন মেলা৷‌ এবারই দেখা গেল বই বা অন্য কোনও সামগ্রী কেনাকাটা করে ঠকে গেলে, তার জন্য অভিযোগ কেন্দ্র৷‌ বইমেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে ওপার বাংলার প্রকাশকরা এসেছেন৷‌ আম্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন প্রকাশনা সংস্হাও হাজির৷‌ বরাবরই ছবিটা একই থাকে৷‌ মিলন মেলায় ধুলো নেই, বইয়ের দাম বাড়ে প্রতি বছর৷‌ এবারও পুনর্মুদ্রণের সাফল্যে কয়েক বছর দেখা যায়নি– এমন অনেক বই এসেছে৷‌ কবিতা থেকে ক্লাসিকস‍্, ধর্মপুস্তক থেকে বিজ্ঞানের গবেষণাগ্রম্হ, কুসংস্কার দূর করার প্রচার থেকে পুজোপার্বণ– যার মনে যা ধরে, সবই মেলে এখানে৷‌ বরাবরের মতো 'আজকাল' এবারও নতুন বইয়ের সম্ভার নিয়ে বইমেলায়৷‌ ঐতিহ্য, আজকালের ছবি৷‌ সেই ট্র্যাডিশন এবারও৷‌ দুর্দাম্ত ও অমূল্য ছবির আলাদা আকর্ষণ৷‌ এবার বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে 'রামেন্দ্রসুন্দরের বিজ্ঞান রচনা সংগ্রহ' সঙ্কলন ও সম্পাদনা শ্যামল চক্রবর্তী, অশোক দাশগুপ্ত-র নেপথ্য ভাষণ (বিংশ খণ্ড), আধুনিক বাংলা গানের 'কথা', সম্পাদনা অলক চট্টোপাধ্যায়, আজিজুল হকের একত্রে আজিজুল, কল্যাণ মুখার্জির গল্পসম্ভার অদৃষ্ট, দেবাশিস দত্তের বিলাইতি ক্রিকেট ককটেল৷‌ এ ছাড়াও পুনর্মুদ্রণ হয়েছে পীযূষকাম্তি সরকারের ভাঙাদিনের ঢেলা, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের দ্রষ্টা, জ্যোতির্ময় দত্তের বাঙ্কর৷‌ বইমেলায় ১১৪ নম্বর স্টলে৷‌ 'আজকাল'-এর পাশেই নজরকাড়া টেকনো ইন্ডিয়া-র স্টল৷‌ টেকনো ইন্ডিয়ার কর্ণধার সত্যম রায়চৌধুরি সম্পাদিত 'শ্রী রামকৃষ্ণ ফর ইউ' বইটি ইতিমধ্যেই জনপ্রিয়৷‌ বইমেলায় মাঠে এদিন আসেন সিটু-র রাজ্য সভাপতি শ্যামল চক্রবর্তী এবং সি পি এমের রাজ্যসভার সাংসদ ঋতব্রত ব্যানার্জি৷‌ ছাত্র সংগ্রাম স্টলের উদ্বোধন হয় এদিন৷‌ বইমেলায় এসেছিলেন বি জে পি নেতা তথাগত রায়৷‌ কলকাতা বইমেলায় এবারই প্রথম ন্যাশনাল স্টক এ'চে? অংশ নিল৷‌ স্টল নম্বর ৫৩৫৷‌ ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যম্ত চলবে মেলা, বাড়বে ভিড়....৷‌ বড় হবে বই-বন্ধুত্বের দীর্ঘ যাত্রা৷‌





ভিএইচপি-এর ধর্মান্তরণ থাবা বসাল এ রাজ্যেও, বীরভূমে ধর্মান্তরিত করা হল শতাধিক আদিবাসী ক্রিশ্চানকে

Last Updated: Wednesday, January 28, 2015 - 19:23
ভিএইচপি-এর ধর্মান্তরণ থাবা বসাল এ রাজ্যেও, বীরভূমে ধর্মান্তরিত করা হল শতাধিক আদিবাসী ক্রিশ্চানকে
বীরভূম: এ রাজ্যেও এবার ধর্মান্তরণের ঘটনা ঘটল। যে ইস্যু নিয়ে গোটা দেশ উত্তাল, সংসদে বিবৃতি দিতে হয়েছে খোদ প্রধানমন্ত্রীকে, সেই ধর্মান্তরণের ঘটনা ঘটল এই রাজ্যেও। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সর্বভারতীয় নেতা প্রবীণ তোগাড়িয়া এবং যুগলকিশোরের উপস্থিতিতেই ধর্মান্তরণ হল। রামপুরহাটের খরমডাঙা গ্রামের এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।
আজ সকালে শতাধিক ক্রিশ্চান আদিবাসী মানুষকে হিন্দু ধর্মে রূপান্তর করানো হয়। পুকুরে স্নান করে, ঘটে জল ভরে মন্দিরে পুজোপাঠ করানো হয় এই আদিবাসীদের।
পরে আহুতি এবং মন্ত্রপাঠের মাধ্যমে ধর্মান্তরণ করা হয় এই আদিবাসী ক্রিশ্চান সম্প্রদায়ের মানুষদের।
মুখে কিন্তু ধর্মান্তরণের বিরোধিতা করেছেন প্রবীণ তোগাড়িয়া। সঙ্গে অভিন্ন আইনের দাবিও তুলেছেন । যুগলকিশোরের মুখেও বিরোধিতা শোনা গেল ঠিকই, কিন্তু তাঁদের উপস্থিতিতেই ধর্মান্তরণের ঘটনা ফের নতুন প্রশ্নের জন্ম দিল। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।
ইতিমধ্যেই, টুইটারে এই ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়েন।

রাজ্যে সরকারি কর্মীদের নতুন সংগঠন গড়ল বিজেপি

ওয়েব ডেস্ক: রাজ্যে সরকারি কর্মীদের নতুন সংগঠন গড়ল বিজেপি। তৈরি হল নতুন সংগঠন, সরকারি কর্মচারি পরিষদ। মঙ্গলবার মৌলালি যুব কেন্দ্রের কনভেনশনে নতুন সংগঠনের সূচনা হয়। তৃণমূল সহ অন্যান্য দলের প্রভাবিত সংগঠন ছেড়ে আসা নেতা কর্মীদের নিয়েই এই কনভেনশনের আয়োজন করা হয়েছিল। এই সব সদস্যদের হাতে নতুন সংগঠনের পতাকা তুলে দেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি রাহুল সিনহা।
এদিকে,  তৃণমূলের ভাঙন ঠেকাতে এবার আসরে নামছেন খোদ  মুখ্যমন্ত্রী। আগামী ৩১ জানুয়ারি কালীঘাটে তৃণমূলের সম্প্রসারিত কোর কমিটির বৈঠক। দলের মধ্যে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে মুখ্যমন্ত্রী সেদিন কী বার্তা দেন সেদিকেই তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল। সব্যসাচী দত্ত থেকে দেবব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়, দীনেশ ত্রিবেদী। বিরাম নেই। বলেই চলেছেন। আজ সাংসদ তো কাল বিধায়ক। কারোর মুখে সরাসরি মোদীর প্রশংসা।

চাঁদনী মার্কেটে প্রতিদিন গড়ে শুধু সানি লিওনেরই দুশোটি করে পর্ন সিডি বিক্রি হয়, বলছে পরিসংখ্যান

চাঁদনী মার্কেটে প্রতিদিন গড়ে শুধু সানি লিওনেরই দুশোটি করে পর্ন সিডি বিক্রি হয়, বলছে পরিসংখ্যান
ওয়েব ডেস্ক: আমাদের দেশে পর্নোগ্রাফির হেড কোয়ার্টার বলতে সচরাচর দক্ষিণ ভারতকেই ধরা হয়। কিন্তু বাংলাতেও নীলছবির চাহিদা বাড়ছে রমরমিয়ে। এরাজ্যে পর্নোগ্রাফির আড়ত হল কলকাতার চাঁদনীচক মার্কেট। কম টাকায় রগরগে সিনেমার পাইরেটেড সিডির জন্য বহু ক্রেতা ভিড় করেন এখানে।
সেখানে সানি লিওন অভিনীত পর্নোমুভির চাহিদা সবচেয়ে বেশি। একশো কুড়ি টাকা থেকে আড়াইশো টাকা, বিভিন্ন রেঞ্জের সিডি পাওয়া যায় চাঁদনীতে। পরিসংখ্যান বলছে, চাঁদনী মার্কেট থেকে প্রতিদিন গড়ে শুধু সানি লিওনেরই দুশোটি করে পর্নোমুভির সিডি বিক্রি হয়।
পর্নোগ্রাফি বা নীলছবি দেখার প্রবণতা বেড়ে চলেছে বিশ্বজুড়ে। মোবাইল, ট্যাবের যুগে পর্নোগ্রাফি দেখার জন্য আর নির্জনতা খুঁজতে হয় না। তালুবন্দি মুঠোফোনে চাইলেই হাজির রগরগে ভিডিও। হাতের আড়ালেই তৈরি হয়ে যায় নিষিদ্ধ নির্জনতা। মন সেঁধিয়ে যায় আদিম রিপুর অমোঘ আকর্ষণে। পর্নোগ্রাফি দেখার অদম্য বাসনায় গা ভাসিয়েছে আমাদের দেশও।  
গুগলে শুধু PORN শব্দটি টাইপ করলে ৮৬ কোটি রেজাল্ট শো করে
ইন্টারনেটের অফুরান ভাণ্ডারে শুধু পর্নোগ্রাফিই রয়েছে কম করে ২০ কোটি
বিশাল জনসংখ্যার দেশ ভারতও এর প্রভাব থেকে মুক্ত থাকে কীভাবে?  সমীক্ষা বলছে, আমাদের পুরো দেশই এখন পর্নোগ্রাফিতে বুঁদ। নীল ছবির ৯০ লক্ষ দর্শক রয়েছে শুধু মোবাইলেই।
যা পুরো ইন্টারনেট ট্রাফিকের ৩০ শতাংশ। এদেশের বড় সংখ্যক নাগরিক ইন্টারনেটে পর্নোগ্রাফির নিয়মিত কাস্টমার। ভারতে সবচেয়ে ভিসিটেড একশোটি সাইটের ৩টি হল পর্ন ওয়েবসাইট।
আর এর ফলস্বরূপ পর্নোগ্রাফি দেখায় বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারত। গুগলের ওই সমীক্ষায় পাকিস্তান রয়েছে এক নম্বরে। স্মার্টফোন, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট আর হাই স্পিড ডাটা সার্ভিস পর্ন ভিডিও আদানপ্রদানের বিষয়টিকে সহজ করেছে। ফলে অনায়াসে স্কুল ছাত্র থেকে সিনিয়র কর্পোরেট অফিসার, সবার কাছে রগরগে ভিডিও পৌছে যাচ্ছে অনায়াসে। দেওয়ান লিখনটাও তাই স্পষ্ট। গুগলের সমীক্ষা বলছে, সারা বিশ্বে যে দশটি দেশে সবচেয়ে বেশি পর্ন ভিডিও দেখা হয়, তার মধ্যে সাতটি শহর ভারতের। এই তালিকায় রয়েছে আমাদের কলকাতাও।

বিনিয়োগের উপযুক্ত পরিবেশ তৈরির বার্তা দিয়ে আত্মপ্রকাশ বিজেপির কর্মচারী সংগঠনের  

এককথায় নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিল বিজেপি। সারা দেশে এই প্রথম কোনও রাজ্যে সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে সংগঠন তৈরি করল দল। ...  আরও»

কিটস ও শেক্সপিয়রের জমানার সঙ্গে ভাল সম্পর্ক ছিল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের - মমতার বক্তব্যে বিভ্রান্তি

মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্য শুনে অনেকে বলছেন, কিটস, শেক্সপিয়র, রবীন্দ্রনাথ - এঁদের মধ্যে তো বহু বছরের ব্যবধান। কী বোঝাতে চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী, বলতে পারবেন তিনিই, বলছেন শিক্ষাবিদদের একাংশ। ... আরও»

বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন অলকা-কবিতা?  

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করলেন গায়িকা অলকা যাজ্ঞিক। কুমার শানুর দাবি, তাঁকে এসএমএস করে এই ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন অলকা। বিজেপি সূত্রের দাবি, শুধু অলকাই নন, খুব তাড়াতাড়ি তাদের দলে যোগ দিতে পারেন আর এক গায়ি ...  আরও»

किसान महापंचायत में उमड़े जनसैलाब ने बिन्दुखत्ता नगरपालिका को नकारा



किसान महापंचायत में उमड़े जनसैलाब ने बिन्दुखत्ता नगरपालिका को नकारा
---------------------------------------------------------------------------------------
अखिल भारतीय किसान महासभा के बैनर तले आज बिन्दुखत्ता के हजारों किसानों ने किसान महापंचायत में शिरकत की और सर्वसम्मति से उत्तराखण्ड की हरीश रावत सरकार द्वारा की गयी नगरपालिका की घोषणा को ख़ारिज कर दिया. महापंचायत में किसानों ने ऐलान किया कि हमें राजस्व गाँव चाहिये, जमीन का मालिकाना हक़ चाहिये इससे कम हमें कुछ भी मंजूर नहीं. महापंचायत से स्थानीय विधायक और मंत्री हरीश दुर्गापाल और मुख्यमंत्री हरीश रावत को चेतावनी दी गयी कि अगर राज्य मंत्रिमंडल नगरपालिका का प्रस्ताव रद्द कर विधानसभा से राजस्व गाँव का प्रस्ताव शीघ्र केंद्र सरकार को नहीं भेजेगा तो आगामी बजट सत्र में उत्तराखण्ड की विधानसभा को घेरने अखिल भारतीय किसान महासभा के बैनर तले बिन्दुखत्ता के किसान आज से भी बड़ी संख्या में पहुंचेंगे.
 —

‪#‎হোকআলোড়ন‬ Bengal is celebrating Book Fair and the Unemployed youth on hunger strike.This is India Shining!


For forty hours,SSC Bhavan is captured by those who passed SSC and have not the job.For forty hours they are one hunger strike.It is HOKALODAN on the line of HOK KOLOROB.The police has disconnected them and their condition seems to be alarming without any help whatsoever.Bengal is celebrating Book Fair and the Unemployed youth on hunger strike.This is India Shining!
Palash Biswas



পুলিশ যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে ।ভিতর থেকে বারে বারে অনশনকারীরা ফোন করছেন, আমাদের জল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে , অনিতাদি বমি করতে গেছে পুলিশ বাথরুমের সামনে গিয়ে টোকা দিচ্ছে, তাড়াতাড়ি বেরিয়ে আসুন । আমরা কেউ একটু পায়চারি করলে পুলিশ বলছে এই চুপ করে বসুন । মহিলা অনশনকারীরা কিছু বললে পুরুষ পুলিশ বলছেন আমরা কি আপনাদের প্যাড এনে দেব নাকি ? যারা হসপিটালে ভর্তি হয়েছিলেন তাদের আর ভিতরে যেতে দেওয়া হচ্ছে না । তারা ভগ্ন শরীর নিয়ে করুণাময়ীর কাছে খালপুলে খোলা আকাশের নিচে রাত কাটাচ্ছেন । পুলিশ মাথার উপর ত্রিপল টাঙাতে দেয়নি ।
সরকারি ভবনের দখল নিয়েছেন সাধারন মানুষ । ৯৬ জন চাকরী প্রার্থী অনশনে বসেছেন SSC ভবনের মধ্যে । অনশন আজ 8০ ঘণ্টায় পড়লো ।পেট জ্বালিয়ে যারা চাকরীর অপেক্ষা করেছেন তাদের পুলিশ নীতি শেখাচ্ছেন, জানেন সরকারি দপ্তরে অনশন করা যায় না, আমরা কেস দেব ।
সরকারি দপ্তরটা মানুষের জন্য, তারা এরআগে দুবার অনশন করেছেন । শিক্ষামন্ত্রী, তাবড় নেতারা আশ্বাস দিয়েছিলেন চাকরী হয়ে যাবে । আজ তাই তারা সরকারি দপ্তরে ।
সংবাদমাধ্যম কিছু দেখাচ্ছে না
শেয়ার করুন
পাশে দাঁড়ান হবু মাষ্টারমশাইদের

Would we,the Indian People unite against this ethnic cleansing racial? RSS opts for Monopolistic aggression despite Obama plead for harmony! And sought to retain the "mistake" of omission of two vital words - "secular" and "socialist" - from the preamble to the Indian Constitution. Palash Biswas


Would we,the Indian People unite against this ethnic cleansing racial?
RSS opts for Monopolistic aggression despite Obama plead for harmony!
And sought to retain the "mistake" of omission of two vital words - "secular" and "socialist" - from the preamble to the Indian Constitution.
Palash Biswas
Would Indian People unite against this ethnic cleansing racial?
Finance Minister for Dow Chemicals have ensured to reopen US projects of nuclear reactors setting US Companies free from liabilities whatsoever.
Latest development after the so called Krishna sudama rappo seems to be making space for Four Billion US Dollars to be used to displace Indian citizens from their Jal Jangal Jameen Hills and Aasman,The Qayamat has been launched against us, the people of India as Industrial projects may get seven year green nod as Narendra Modi government looks to boost infra sector,as ET claims.

The constitution of India has to be killed to accomplish the agenda of Hindutva as well as economic reforms for racial ethnic cleansing!

CLSA managing director and strategy boss Christopher Wood expects the BJP government to offer fiscal stimulus in the next month's budget, and sees room for the central bank to cut interest rate by at least two percentage points over the next two years.

That is why RSS opts for Monopolistic aggression despite Obama plead for harmony!Thus,Political grapevine is rife with speculations about the Bharatiya Janata Party (BJP) forming alliance with the Peoples Democratic Party in Jammu and Kashmir later this month.The BJP and PDP have reached a broad understanding to form government in J&K, reports said on Wednesday.Reports indicate both the parties are working to evolve a seat sharing formula and are expected to reach a consensus soon.


Your Article 25 (of the Constitution) says that all people are equally entitled to freedom of conscience and the right freely to profess, practice and propagate religion," President Obama said.Mind you.Nevertheless,US announced $4 billion of new initiatives, trade missions: Obama announced $4 billion of new initiatives aimed at boosting trade and investment ties as well as jobs in India, and opened up a whole new source of financing for social development ventures ...and so on.

Minutes ahead of the meeting, HSBC chief Naina Lal Kidwai said that defence and renewable energy are big areas of opportunity. Nuclear sector will see private sector investment from US, she added.Noteworthy.

"We need 6 lakh crore investment in the renewable energy sector. US can provide tech and financing for the sector. I believe investment will come from US in the nuclear sector. Companies will wait for the details of the deal before making any investment, " she told a private news channel.

They overcame key disputes over a long-stalled civil-nuclear trade deal that hindered U.S. companies from investing in nuclear power plants in India for years. Obama announced on Monday $4 billion in U.S.-backed investments and loans to India!

Modi has vowed to revive stalled infrastructure projects, boost the manufacturing sector, cut red tape and encourage greater foreign investment, raising hopes that India and its economy are on the rebound. "There is a desire ... First proposed nearly a decade ago by the Indian National Congress–led government of former prime minister Manmohan Singh, the tax can be compared to the introduction of the income tax in the U.S. a century ago or the launch of the European Union's single market in the 1990s.

Thus,RSS is focused on the constitution while a Hindutva Governance in Kashmir seems to be certainty as RSS got it very clear that Kiran Bedi might not win against Kejriwal and Anna Hazare is also in blitz once again and this time against the Modi Government.No political compulsion pulls back RSS mind and heart and the armies of shafron clones have taken over the country.

Should we not stand together?
Against absolute power?
Against ethnic cleansing of Have nots across identities?
Against violation of civic and human rights?
Against COMPLETE Privatization?
Against Zionist satanic Barmuda triangle?
Against mass destruction?
Against the killing of rural India and the Green?
Against patriarchal religious conversion forcible of all Non Hindus?
Against Nazi regimented corporate politics,policy making,legislation and governance?
Against inherent inequality and Injustice?
Against promoter builder raj all on name of development and Infra and false growth saga?
Against Bull Run against women countrywide?
Against killing of retailers and small,medium business?
Against the blind race,what Gandhi defined as PAGAL DAUD and for which Hindutva shot him dead and for which Nathuram Godse is reincarnated to invoke the gods of mass destruction?
Against the vaccination of Polonium 210 and radioactive disaster?
Against the continuous rape with the Nature?
Against Fascism?

Mind you,a day after row erupted over a Republic Day advertisement of the Union Information and Broadcasting Ministry, the Shiv Sena on Wednesday demanded "permanent deletion" of the words "secular" and "socialist" from the preamble to the Constitution.And RSS sought to retain the "mistake" of omission of two vital words - "secular" and "socialist" - from the preamble to the Indian Constitution.

It is quite in accordance with the Manusmriti Rule project of Hindu Imperialism as much as green clearance for billion billion dollars.Just see,Shiv Sena - a key constituent in the ruling National Democratic Alliance (NDA) - on Wednesday sought to retain the "mistake" of omission of two vital words - "secular" and "socialist" - from the preamble to the Indian Constitution.

"We welcome the exclusion of the words ('secular' and 'socialist') from the Republic Day advertisement. Though it might have been done inadvertently, it is like honouring the feelings of the people of India. If these words were deleted by mistake this time, they should be deleted from the Constitution permanently," Sena MP Sanjay Raut said.

"From the time they (the words) were included in the Constitution, it is being said that this country can never be secular. Balasaheb Thackeray and before him Veer Savarkar had been saying that India was divided on the lines of religion. Pakistan was created for Muslims, thus, what remains is a Hindu Rashtra," Mr. Raut said.

The minority community has been used only for political gains, while "Hindus are being continuously disrespected", he alleged.

"It is nowhere written in the Constitution that you mete out such treatment to Hindus and use Muslims to garner votes," he said.

"This mistake on the part of the government has happened only because destiny wants this to happen. Modi is the Prime Minister of India, and his thoughts on Hindutva are strong," the Sena leader said.\

On Tuesday, Congress leader Manish Tewari had attacked the Centre on the issue, claiming the government advertisement "deleted" the two words, which was only a prelude to their "substitution" with "communal" and "corporate".

Minister of State for I&B Rajyavardhan Rathore, however, was quick to dismiss the charge, saying his Ministry had only used an "original" picture of the preamble as it appeared before the Amendment, to "honour" the first preamble.

The Union Minister also claimed that the same picture had been used in an advertisement by the I&B Ministry in April 2014. Mr. Tewari had helmed the Ministry at that time.

The advertisement showed a picture of the preamble in the background with a quote from Prime Minister Narendra Modi and pictures of some citizens in the foreground.

Budget 2015: How reforms can help Modi's "Make in India" campaign

January 28, 2015
(Any opinions expressed here are those of the author and not necessarily those of Thomson Reuters)
The government's "Make in India" initiative is being closely followed by Indian companies and foreign investors. A lot of hope rests on the BJP government's first full-year budget following its victory in last year's general election as the announcements made by Finance Minister Arun Jaitley will impact the investment cycle.
Some reforms that will help the "Make in India" campaign are:
A stable tax regime – Reforms proposed in the budget should be in line with the long-term vision for India. There should be no surprise addition of taxes or removal of tax holidays or deductions.
Clarity on tax law - Taxation in India is subject to multiple interpretations by the taxpayer and the tax department, and some of them need to be addressed at the earliest. For example, the rule on taxability of offshore transactions resulting in an indirect transfer of assets in India needs clarification. The government should come out with detailed guidelines on the methodology to compute the tax liability in India in case of such indirect transfers. The deferment of General Anti-Avoidance Rules till the tax regime stabilizes would be helpful.
Further, there are many industry-wide tax issues wherein tax officers in different jurisdictions have taken different positions. The government needs to set up a panel which would address specific industry issues, and the same should be made enforceable through the country.
Tax sops for investment in key sectors and reduction in the Minimum Alternate Tax (MAT) rate – Tax holidays for new manufacturing facilities set up across sectors would boost investment. Such new facilities should not be subject to taxes under the MAT regime. Also, the existing MAT rate should be reduced for units currently availing tax holidays.
Implementation of GST - Implementation of a nationwide goods and services tax (GST) and removal of the numerous indirect tax laws would have a major impact on businesses. A clear roadmap for implementation of GST would enable investors to take calculated calls on their investment/expansion plans in India.
Transparent and quick resolution of disputes – Increasing the scope and power of the Dispute Resolution Panel could help tackle the long list of unresolved litigation matters. Also, additional benches of the Authority of Advance Rulings (AAR) would strengthen the tax tribunal and result in speedy disposal of applications for advance rulings.
Transfer Pricing – Introduction of the concept of the rollback provisions for advance pricing agreements (APAs) in the 2014 budget was a welcome move. One expects the necessary legislative amendments being introduced in the upcoming budget to prescribe the extent and manner of the applicability of these provisions.
Going forward, the government should consider creating a financial zone to turn India into a manufacturing hub. Benefits such as lower taxes, no permanent establishment issue and non-applicability of transfer pricing provisions could be provided to businesses in this zone. They would act as enablers to convince firms to conduct their business without having to worry about the tax consequences on their overseas income in India.

  1. 8 things Budget 2015 could do: Cues from FM Arun Jaitley

  2. Economic Times-5 hours ago
  3. 8 things Budget 2015 could do: Cues from FM Arun Jaitley. The budget, which will be announced on Feb 28, is widely expected to lay down the ...
  4. Kiran Bedi's Offer to Play Doctor Upsets some in BJP, Jaitley to the ...

  5. NDTV-5 hours ago
  6. Key party strategist Arun Jaitley has been tasked with bringing together the BJP's campaign efforts in the capital, with regular meetings at the ...
  7. ABP News-8 hours ago
  8. Explore in depth (524 more articles)
  9. Budget 2015: FM Arun Jaitley for tax reforms and quick decisions to ...

  10. Economic Times-27-Jan-2015
  11. Budget 2015: FM Arun Jaitley for tax reforms and quick decisions to ensure stability. By PTI | 27 Jan, 2015, 06.15PM IST. Post a Comment ...
  12. Firstpost-1 hour ago
  13. Explore in depth (122 more articles)
  14. EBRD chief to meet Jaitley, Rajan in India

  15. Business Standard-4 hours ago
  16. The chief of the European Bank for Reconstruction and Development (EBRD) will travel to India this week to hold talks with Finance Minister ...
  17. Indiainfoline-3 hours ago
  18. Explore in depth (3 more articles)
  19. Srinivasan set to discuss future move with Jaitley post ICC meet

  20. Firstpost-1 hour ago
  21. So ideally, there is a chance of meeting Jaitley in Delhi on either January 30 or 31 or may be a tele-conference depending on the finance ...
  22. Deccan Chronicle-51 minutes ago
  23. Explore in depth (17 more articles)
  24. Fiscal targets likely to be met, manufacturing sector reviving: Jaitley

  25. Firstpost-10 hours ago
  26. New Delhi: Finance Minister Arun Jaitley today said fiscal deficit targets for current year are likely to be met and manufacturing sector is ...
  27. Fiscal targets likely to be met: FM Arun Jaitley

  28. Economic Times-26-Jan-2015
  29. Fiscal targets likely to be met: FM Arun Jaitley ... it is turning around and it looks like we will be able to meet our fiscal targets," Jaitley said here.
  30. Budget 2015: Dear Jaitley, salaried class deserves exclusive tax ...

  31. Firstpost-12 hours ago
  32. Successive finance ministers have made right noises about widening the tax base, alluding to the reality that businessmen and professionals ...
  33. Reuters India (blog)-3 hours ago
  34. Explore in depth (4 more articles)
  35. Delhi polls 2015: Arun Jaitley, Ananth Kumar, Nirmala Sitharaman ...

  36. Economic Times-21 hours ago
  37. Delhi polls 2015: Arun Jaitley, Ananth Kumar, Nirmala Sitharaman discuss BJP readiness. By PTI | 27 Jan, 2015, 10.50PM IST. Post a Comment ...
  38. Business Standard-22 hours ago
  39. Explore in depth (33 more articles)
  40. Subsidies to be rationalised: Arun Jaitley

  41. The Hindu-22-Jan-2015Share
  42. Wooing global investors, Finance Minister Arun Jaitley on Thursday hinted at rationalising subsidies, rebuilding credibility of taxation structure ...
  43. Economic Times-23-Jan-2015
  44. Explore in depth (436 more articles)

Search Results

  1. Base year revision to up Indian economy to Rs 111 trillion in FY14

  2. Economic Times-3 hours ago
  3. Base year revision to up Indian economy to Rs 111 trillion in FY14 ... India's national accounts will increase the size of the economy to Rs 111.7 ...
  4. Hindu Business Line-3 hours ago
  5. Explore in depth (5 more articles)
  6. India best positioned among emerging market economies: report

  7. Economic Times-3 hours ago
  8. India best positioned among emerging market economies: report ... "After the taper tantrum scare in May-2013, the Indian economyhas ...
  9. Moneycontrol.com-34 minutes ago
  10. Explore in depth (6 more articles)
  11. India ranked world's 128th freest economy

  12. Zee News-9 hours ago
  13. Washington: With an economic freedom score of 54.6 out of 100,India has been ranked 128th freest economy in the 2015 Index ofEconomic ...
  14. The Express Tribune-10 hours ago
  15. Explore in depth (74 more articles)
  16. India's economy may save $45 billion due to fall in oil prices: Credit ...

  17. Economic Times-8 hours ago
  18. India's economy may save $45 billion due to fall in oil prices: Credit Suisse ... NEW DELHI: India's economy will save US$45 billion/year if Brent ...
  19. Financial Express-5 hours ago
  20. Explore in depth (6 more articles)
  21. Why the US should aim for bigger economic plans with India

  22. Fortune-26-Jan-2015
  23. By backing India's membership in the Asia-Pacific EconomicCooperation, ... in the trade group—the absence of India, a major Asian economy.
  24. Economic Times-27-Jan-2015
  25. Explore in depth (9,120 more articles)
  26. Obama enlists help of Indian diaspora in US to bolster stronger ...

  27. The Guardian-26-Jan-2015
  28. The three million-strong Indian American diaspora in the US is being enlisted to help kickstart relatively lacklustre economic ties between the ...
  29. India, Germany to set up working groups on water management

  30. Economic Times-20 minutes ago
  31. Circular economy refers to use of waste of one industry by another industry ... withIndia its experience in building a modern circular economy.
  32. Indian economic growth forecasts pegged back, despite rate cuts ...

  33. Reuters-23-Jan-2015
  34. REUTERS - India's economy will pick up steam in the fiscal year beginning in April, but not by as much as analysts thought just a few months ...
  35. Moneycontrol.com-23-Jan-2015
  36. Explore in depth (17 more articles)
  37. Red tape and skills gap threaten hope of record growth for India

  38. The Guardian-24-Jan-2015
  39. This weekend, with President Barack Obama making his second visit to the Indian capital, many international eyes are on the Indian economy ...
  40. Moneycontrol.com-27-Jan-2015
  41. Explore in depth (28 more articles)
  42. Why India Will Keep Growing Faster Than China

  43. Bloomberg-12 hours agoShare
  44. The economic growth race between India and China started in the late 1940s, around the time India gained independence and adopted ...
  45. Seeking Alpha (registration)-6 hours ago
  46. Explore in depth (6 more articles)
  47. India's economy on the rise as oil price drops

  48. The National-24-Jan-2015
  49. The slump in oil prices is providing a boost for India as the country emerges from its worst economic slowdown in decades. "India, which is one ...
  50. Apple's app economy is bigger than Hollywood. Which are the top ...

  51. Yourstory.in-25-Jan-2015
  52. Apple's app economy is bigger than Hollywood. Which are the top developers from India? Jubin Mehta | January 26, 2015 at 9:00 am. 223. This article is ...
  53. How America Can Unleash India's Massive Economic Potential

  54. Foreign Policy (blog)-27-Jan-2015
  55. This marks the demise of India's vexed tradition of non-alignment, which ... This would require substantial liberalization of the Indian economy, ...
  56. Indian growth to race ahead of world in two years: IMF

  57. Economic Times-21-Jan-2015
  58. Indian growth to race ahead of world in two years: IMF .... NEW DELHI: India is set to become the world's fastest-growing majoreconomy in ...
  59. Financial Express-20-Jan-2015
  60. Explore in depth (1,028 more articles)
  61. S&P: Cannot disregard potential upside to India's ratings

  62. Economic Times-23-Jan-2015
  63. S&P: Cannot disregard potential upside to India's ratings ... maintain fiscal discipline while reviving the economy and drumming up investment, ...
  64. Reserve Bank of India may ease rates further: Chief Economic ...

  65. Economic Times-26-Jan-2015
  66. Reserve Bank of India may ease rates further: Chief EconomicAdvisor ... who was here to attend the World Economic Forum Annual Meeting.
  67. 'India, Gulf nations rapidly becoming biggest trading partners'

  68. Economic Times-8 hours ago
  69. DUBAI: Key economies like India and China are rapidly becoming the ... Exploring the Gulf Cooperation Council (GCC)'s economic ties with ...
  70. Facebook's impact on Indian economy pegged at $4 billion

  71. The Hindu-20-Jan-2015
  72. Facebook enabled USD 4 billion economic impact on the Indian economy and contributed to 335,000 jobs in some or the other way during last ...
  73. Trak.in (blog)-20-Jan-2015
  74. Explore in depth (197 more articles)
  75. On a three-day tour to India Obama's visit is being seen as an ...

  76. Economic Times-25-Jan-2015
  77. ... the huge potential of the Indian economy has become vital for the US. ... that Indiais potentially a very big market for the US, whose economy ...
  78. Modi's Speech to CEOs, Obama in Full

  79. Wall Street Journal (blog)-26-Jan-2015Share
  80. The meetings took place as part of the India-U.S. CEO Forum in ....India will be an important anchor of stability for the global economy; and an ...
  81. The Hindu-27-Jan-2015
  82. Explore in depth (55 more articles)